ক্রিকেটবাংলাদেশ ক্রিকেট

এশিয়া কাপে তামিমের সাথে ওপেনিংয়ে ব্যাট করবে যে টাইগার

এশিয়া কাপ শুরু হতে আর মাত্র কয়েকদিন বাকি। আগামী মাসের ১৫ সেপ্টেম্বর সংযুক্ত আরব আমিরাতের ৬ দল নিয়ে অনুষ্ঠিত হবে এশিয়ার সবচেয়ে জমজমাট টুর্নামেন্ট এশিয়া কাপ ক্রিকেট। এশিয়া কাপে এবারের আসরে প্রথম রাউন্ডে বাংলাদেশের খেলা শ্রীলঙ্কা এবং আফগানিস্তানের সাথে। এ গ্রুপ রয়েছে ভারত পাকিস্তান সহ বাছাই পর্বে চ্যাম্পিয়ন দল।

প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ মুখোমুখি হবে শ্রীলঙ্কার। আর এই টুর্নামেন্টকে সামনে রেখে আগামী ২৭ অাগস্ট থেকে অনুশীলন ক্যাম্প শুরু করবে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। ইতিমধ্যেই অনুশীলনের জন্য ৩০ সদস্যের চূড়ান্ত দল করে ফেলেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। টেস এবং টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে পর এবার ওয়ানডে দল থেকে নিজের জায়গা হারাচ্ছেন ব্যাটসম্যান সাব্বির রহমান।

এছাড়াও ইনজুরির কারণে দলে এখনও অনিশ্চিত নাসির হোসেন। ৩০ সদস্যের দলে দেখা যেতে পারে একাধিক নতুন চমক। তবে বিসিবির ভিতরের খবর এশিয়া কাপের জন্য দল এক প্রকার চূড়ান্ত। ওপেনিং এ তামিম ইকবালের সাথে দেখা যেতে পারে নতুন মুখ। সে ক্ষেত্রে দল থেকে এবার পাকা-পাকি ভাবে জায়গা হারাচ্ছেন সৌম্য সরকার।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে আনামুল হক বিজয় সুয়োগ পেলেও সিরিজে পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছেন তিনি। তাই এশিয়া কাপে তামিমের সাথে ওপেনিং এ দেখা যেতে পারে লিটন দাসকে। যদিও বাংলাদেশের ভাবনায় রয়েছেন আরেক ওপেনার ইমরুল কায়েস। তবে সবার থেকে একটু এগিয়ে রয়েছেন লিটন। বাংলাদেশ জাতীয় দলের নতুন কোচ স্টিভ রোডস এর প্রশংসায় ভাসিয়েছেন লিটন কুমারের।

এশিয়া কাপের আগে হাতের অস্ত্রোপচার করলে সাকিবের পরিবর্তে দলে চিন্তাভাবনায় আসতে পারেন মমিনুল হক। অন্যদিকে সাব্বির বাদ পড়ায় এবং নাসির হোসেন ইনজুরিতে থাকার কারণে টি-টোয়েন্টি পর ওয়ানডে দলে দেখা যেতে পারে বোলিং অলরাউন্ডার আরিফুল হককে। তবে বাংলাদেশ ক্রিকেটের এখন বড় খবর আগামীকাল থেকে নিষেধাজ্ঞা উঠে যাচ্ছে মোহাম্মদ আশরাফুল এর উপর থেকে।

অনেকেই ধারণা করছেন এশিয়া কাপে দেখা যাবে মোহাম্মদ আশরাফুলকে। যদিও গত ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে এক মৌসুমে ৫ সেঞ্চুরি করে হইচই ফেলে দিয়েছিলেন আশরাফুল। তবে আশরাফুলের ৫ সেঞ্চুরি তো মন বলছে না নির্বাচকদের। বাংলাদেশ দলে সুযোগ পেতে হলে অলৌকিক কিছুই করতে হবে মোহাম্মদ আশরাফুলকে।

‘সাড়ে পাঁচ বছর অপেক্ষা করেছি এই দিনটির জন্য

১৩ আগস্ট সোমবার দিনটি মোহাম্মাদ আশরাফুলের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নির্বাসনে থাকার শেষ দিন। এদিনই শেষ হচ্ছে দীর্ঘ সাড়ে পাঁচ বছরের অপেক্ষার পালা। মঙ্গলবার সকালের সূর্যটা ওঠার সাথে সাথে এই সাবেক অধিনায়কের জন্য শুরু হবে নতুন একটি অধ্যায়। সব নিষেধাজ্ঞার শেষে তার জন্য উন্মুক্ত হবে সব ধরনের ক্রিকেটের দ্বার।

সোমবার বাংলাদেশের ক্রিকেট থেকে নিষেধাজ্ঞা উঠছে মোহাম্মদ আশরাফুলের। বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক এই অধিনায়ক জানান অনেক দিন ধরে এই দিনটির অপেক্ষায় ছিলেন। ২০১৩ সালে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে ম্যাচ পাতানো ও স্পট ফিক্সিংয়ের দায়ে পরের বছর বিপিএল এন্টি করাপশন ট্রাইব্যুনাল আশরাফুলকে ৮ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করে। সঙ্গে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। পরে সে বছর সেপ্টেম্বর মাসে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের ডিসিপ্লিনারি প্যানেল ওই সাজা কমিয়ে পাঁচ বছর করে।

মুক্তির এই দিন সম্পর্কে আশরাফুল বিবিসিকে বলছেন ‘প্রায় সাড়ে পাঁচ বছর ধরে অপেক্ষা করেছি এই দিনটির জন্য, এবার ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট ও বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে খেলার জন্য উন্মুক্ত হচ্ছি।’

গত দুই বছর ধরে ঘরোয়া ক্রিকেট খেলছেন তিনি। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ ও জাতীয় লিগে ক্রিকেট খেলেছেন মোহাম্মদ আশরাফুল। তবে তার লক্ষ্য এবার জাতীয় দলে ফেরা। আশরাফুল বলেন, ‘যদিও আমি শেষ দুই বছর প্রথম শ্রেনীর ক্রিকেট খেলেছি। পাঁচ বছর আগে থেকেই ভেবেছিলাম যে বাংলাদেশ দলের হয়ে খেলবো। শেষ ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে ভাল খেলেছি। এবারও ঘরোয়া ক্রিকেটে বাড়তি মনোযোগ থাকবে।’

ফিটনেসের প্রতি বিশেষ নজর
ক্রিকেটে ফেরার পর থেকে মূলত ফিটনেসের দিকে নজর ছিল মোহাম্মদ আশরাফুলের। বর্তমানে লন্ডনে অবস্থান করছেন আশরাফুল। সেখানে নিজেকে প্রস্তুত করছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের জন্য। অভিষেক টেস্টে সবচেয়ে কম বয়সে টেস্ট সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়া আশরাফুল স্বপ্ন দেখছেন আবার জাতীয় দলে ফেরার। ঘরোয়া ক্রিকেটে পারফর্ম করেই ফিরতে চান জাতীয় দলে। তার লক্ষ্য জাতীয় দলের হয়ে আগামী বিশ্বকাপ(২০১৯) খেলা। জানালেন, ‘আমি মূলত ফিটনেসের প্রতি নজর দিচ্ছি দুইটা বছর ধরে। গেল দু মাসে আট থেকে নয় কেজি ওজন কমেছে।’ আশরাফুল তার এই দুঃসময়েও সমর্থন দিয়ে যাওয়ার জন্য ভক্ত-সমর্থকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। উল্লেখ বর্তমানে আশরাফুলের বয়স ৩৪ বছর।

জাতীয় দলে ফেরার সুযোগ কতটা?
বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের ক্রিকেট অপারেশন্সের প্রধান আকরাম খান বিবিসি বাংলাকে বলেন, ‘শুধু আশরাফুল কেনো? এখানে সবার সমান সুযোগ রয়েছে।’

আকরাম খান বলেন, এখানে ঘরোয়া ক্রিকেট আছে। ঘরোয়া ক্রিকেটে ভাল করলে অবশ্যই সুযোগ পাবে আশরাফুল। আশরাফুলের জাতীয় দলে খেলার সময়ের স্মৃতিচারণ করে আকরাম খান বলেন, ‘বাংলাদেশের জার্সিতে ওর এতো সুন্দর কিছু ইনিংস আছে যা আমাদের তার কথা মনে করিয়ে দেয়।’

সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স
গত দুই মৌসুমে আশরাফুলের সেরা পারফরম্যান্স, ২০১৭-১৮ মৌসুমে লিস্ট-এ’ তে পাঁচটি সেঞ্চুরি। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে করা তার পাঁচ সেঞ্চুরি একটি রেকর্ড। কোন লিস্ট-এ টুর্নামেন্টে পাঁচটি সেঞ্চুরি করা দ্বিতীয় ক্রিকেটার তিনি, বাংলাদেশে প্রথম। ২০১৫-১৬ মৌসুমে মোমেন্টাম ওয়ানডে কাপে দক্ষিণ আফ্রিকার আলভারো পিটারসন পাঁচটি সেঞ্চুরি করেছিলেন।

নিষেধাজ্ঞা উঠার পর ২৩টি লিস্ট-এ ম্যাচে আশরাফুলের গড় ৪৭.৬৩ হলেও তবে এ সময়ে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে সময়ে ১৩ ম্যাচে তার গড় ২১.৮৫। বাংলাদেশের হয়ে ১৭৭টি ওয়ানডে ম্যাচ ও ৬১টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন মোহাম্মদ আশরাফুল।

Related Articles

Close