আন্তর্জাতিক ক্রিকেটক্রিকেট

এশিয়া কাপে দুইজনকে খুব করে দলে চাচ্ছেন রোডস

আগামী ১৫ই সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচের মাধ্যমে শুরু হতে যাচ্ছে এশিয়া কাপ। সেই এশিয়া কাপের জন্য এখনো ঘোষণা করা হয়নি স্কোয়াড। সেই স্কোয়াডে কে বা কারা থাকছেন সেটি এখনো জানা যায়নি।

তবে ওয়ানডে স্কোয়াডে বেশির ভাগ ক্রিকেটারের জায়গা প্রায় নিশ্চিত হলেও বাড়তি কিছু ক্রিকেটারকে দেখতে চাইছেন তিনি। সেই তালিকায় আছেন আয়ারল্যান্ডের সাথে রেকর্ড ১৮২ রান করা মুমিনুল এবং আয়ারল্যান্ড সফরে তান্ডব দেখানো তরুন উইকেট কিপার ব্যাটসম্যান জাকির হোসেন। এই দুইজনকে স্কোয়াডে দেখতে চান কোচ।

নব নিযুক্ত কোচ রোডসের প্রত্যাশা পূরণে নির্বাচকদের বাড়তি চিন্তার আশ্রয় নিতে হচ্ছে। তবে বাংলাদেশ এ দল গত দুই-তিন মাস খেলার মধ্যে থাকায় খুব একটা সমস্যায় পড়তে হচ্ছে না মিনহাজুল আবেদিন নান্নুর কমিটিকে।

 

দুই বছরের মধ্যেই বিরুশকার মোট উপার্জন ছাড়াবে ১০০০ কোটি

বিরাট কোহলি-আনুশকা শর্মা। একজন ব্যাট হাতে মাঠে নামলেই গড়ছেন রেকর্ডের পর রেকর্ড। আরেকজন দুর্দান্ত অভিনয়ের মধ্য দিয়ে শাসন করছেন রূপালি পর্দা। জনপ্রিয়তায় দুই ভুবনের এই দুই তারকা যেন নিজেদেরকেই ছাড়িয়ে যাচ্ছেন প্রতিনিয়ত।

অবশ্য শুধু জনপ্রিয়তাই নয়, ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সের পাশাপাশি হুহু করে বাড়ছে এই জুটির অর্থবিত্তও। প্রতিনিয়ত বেড়ে চলেছে তাদের ব্র্যান্ড ভ্যালুও। কিন্তু ঠিক কতটা? তা বুঝতে একটি তথ্যই যথেষ্ট। আর তা হলো – অচিরেই এই জুটির মোট উপার্জন ছাড়াতে চলেছে এক হাজার কোটি রুপি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডের বরাত দিয়ে ক্রিকেট বিষয়ক ওয়েবসাইট ক্রিকট্র্যাকারের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আগামী দুই বছরের মধ্যেই হাজার কোটি রুপির ক্লাবে নাম লেখাবেন বিরুশকা।

কোহলির বর্তমান সম্পত্তি ৬০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। ভারতীয় মুদ্রায় যার পরিমাণ ৩৮২ কোটি রুপি। তার এই আয়ের অধিকাংশ আসে জাতীয় দল ও আরসিবির হয়ে ম্যাচ ফি, নিজস্ব ব্র্যান্ড এনডোর্সমেন্ট এবং বিজ্ঞাপনী উপার্জন থেকে। অন্যদিকে, আনুশকার নিজস্ব সম্পত্তির পরিমাণ ৩৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

ভারতীয় মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় ২২০ কোটি রুপি। সবমিলিয়ে দু’জনের মোট সম্পত্তি ৬০০ কোটি রুপি। ভারতের বিখ্যাত ব্র্যান্ড অ্যানালিস্ট শৈলেন্দ্র সিংহ জানিয়েছেন, এভাবে বাড়তে থাকলে আগামী দু’বছরের মধ্যেই তাদের মোট উপার্জন ছাড়িয়ে যাবে ১০০০ কোটি রুপি। তিনি বিরুশকাকে ‘পাওয়ার কাপল’ বলেও আখ্যায়িত করেছেন।

এ নিয়ে শৈলেন্দ্র সিংহর ভাষ্য, ‘ভারতীয় ব্র্যান্ড মার্কেটে সবথেকে বড় মুহূর্ত উপস্থিত। ইতোমধ্যে পাওয়ার কাপল হিসেবে আবির্ভূত হয়েছেন কোহলি-আনুশকা। দুই জনের সামনে আরও অনেক সুযোগ আসবে নিজেদের ক্ষেত্রে আরও সাফল্য আনার জন্য। এই জুটির মোট সম্পত্তি মূল্য আগামী দুই বছরের মধ্যেই ১০০০ কোটি টাকা পেরিয়ে যাবে।’

Related Articles

Close