আন্তর্জাতিক ফুটবলফিফা ওয়ার্ল্ড কাপ ২০১৮ফুটবল

বিশ্বকাপের সকল অর্থ দিয়ে দেম্বেলের মসজিদ নির্মাণ

ফ্রান্সের বিশ্বকাপ জয়ী দলের অন্যতম তারকা ওসমান দেম্বেলে। ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ফাইনালে না খেললেও প্রাইজমানি আর বোনাসের টাকা পাচ্ছেন বার্সেলোনার এই ওয়ান্ডার কিড। বিশ্বকাপে অর্জিত সব টাকাই তিনি খরচ করতে যাচ্ছেন মুসলমানদের জন্য মসজিদ নির্মাণের কাজে।

উত্তর ফ্রান্সের ভার্ননে জন্ম দেম্বেলের। বাবা-মা দু’জনেই উত্তর-পশ্চিম আফ্রিকার মৌরিতানিয়া থেকে এসেছিলেন ফ্রান্সে। দেম্বেলের মা সেনেগালের আর বাবা মালির। দুজনই মুসলিম।

আফ্রিকার উত্তরের দেশ মৌরিতানিয়া। মুসলিম অধ্যুষিত মায়ের গ্রামে একটি মসজিদ নির্মাণের ঘোষণা দিয়েছেন দেম্বেলে। তাতে খরচ করবেন বিশ্বকাপে অর্জিত সব টাকা। শতভাগ মুসলমানদের এই দেশটির আয়তন ১০ লক্ষ ৩০ হাজার বর্গ কিলোমিটার। দেশটির লোকসংখ্যা প্রায় ৪৪ লাখ।

২১ বছর বয়সী দেম্বেলে রাশিয়ায় খেলেছেন বিশ্বকাপের চারটি ম্যাচ। অ্যান্তোনিও গ্রিজম্যান, অলিভের জিরুদ, কাইলিয়ান এমবাপেদের আক্রমণভাগে নিজেকে সেভাবে মেলে ধরতে পারেননি। রেনের হয়ে খেলার পর ২০১৬-১৭ মৌসুমে দেম্বেলে যোগ দেন জার্মান ক্লাব বরুশিয়া ডর্টমুন্ডে। এক মৌসুম পড়েই যোগ দেন বার্সায়। জাতীয় দলের হয়ে দেম্বেলে খেলছেন ২০১৬ সাল থেকে, ১৬ ম্যাচ খেলে গোল করেছেন মাত্র দুটি।

তবে, বার্সায় যোগ দিয়েই আলোচনায় আসেন মুসলমান এই খেলোয়াড়। ২০১৫ সালে পেশাদার ফুটবলে অভিষিক্ত দেম্বেলে দেড় কোটি ইউরো ট্রান্সফার ফিতে রেন থেকে ডর্টমুন্ডে যোগ দেন। বুন্দেসলিগার ক্লাবটির সঙ্গে তার চুক্তির মেয়াদ ছিল ২০২১ সাল পর্যন্ত। পরে পাঁচ বছরের চুক্তিতে মেসি-সুয়ারেজদের ক্লাবে যোগ দেন তিনি। ২১ বছর বয়সী এই খেলোয়াড়ের বাই আউট ক্লজ ধরা হয় ৪০ কোটি ইউরো।

 

দিশা পাটনির রূপে ঘায়েল লোকেশ রাহুল

তিনি গোটা দেশের ক্রাশ। তাঁর নিষ্পাপ সৌন্দর্যে কাত এদেশের কত না তরুণ হৃদয়। সেই দিশা পটনি এবার বোল্ড করে দিলেন অন্য এক সেলিব্রিটিকে। সেই সেলেব আবার সাক্ষাৎকারে সেকথা স্বীকারও করে নিলেন। লোকেশ রাহুল জানিয়ে দিলেন, সত্যিই তিনি মুদ্ধ দিশা পটনির রূপে।

সর্বভারতীয় এক প্রচারমাধ্যমে লোকেশ রাহুল জানিয়ে দিলেন দিশা পটনি তাঁর ‘সিক্রেট ক্রাশ’। এর আগে বেশ কিছু বলিউড অভিনেত্রীর সঙ্গে লোকেশের সম্পর্ক নিয়ে গুঞ্জন চলছিল। এলিক্সির নায়ারের সঙ্গেও নাকি বেশ চুটিয়ে প্রেমের ইনিংস খেলে চলেছেন তিনি। মাঠের মধ্যে সুপারস্টার লোকেশ। কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের হয়ে ব্যাটে রানের মশাল জ্বালিয়েছেন। আইপিএল-এ ১৪ ম্যাচে লোকেশ ৬৫৯ রান করেন।

সদ্যসমাপ্ত ব্রিটেন সফরে আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে অর্ধশতরান করে দলকে জিততে সাহায্য করেছেন। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম টি টোয়েন্টি ম্যাচেও দুর্দান্ত শতরান হাঁকিয়েছিলেন দক্ষিণী তারকা। সাম্প্রতিক দুরন্ত ফর্মের সৌজন্যেই টি টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ে তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছেন তিনি।

আগামী বছরেই বিশ্বকাপ! সীমিত ওভারের ক্রিকেটে চার নম্বর পজিশনে লোকেশ রাহুলকেই ভাবা হচ্ছে দীর্ঘস্থায়ী সমাধানসূত্র হিসেবে। এমন অবস্থাতেই রাহুলের একান্ত সাক্ষাৎকারে পর্দা ফাঁস। জানিয়ে দিলেন দিশা পটনি তাঁর ‘গোপন ক্রাশ’। পাশাপাশি আরও জানালেন, তাঁর সেরা ক্রিকেটের আইডল হলেন এবি ডিভিলিয়ার্স ও বিরাট কোহলি। জাতীয় দলে তাঁর সবথেকে কাছের বন্ধু হলেন বিরাট কোহলি ও মুরলি বিজয়।

পাশাপাশি জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল, কোন প্র্যাঙ্কস্টার থেকে তিনি দূরে থাকতে চান? রসিকতার ছলে লোকেশের জবাব, ইশান্ত শর্মা। জাতীয় দলে লোকেশকে ‘মই’ ডাকনামে ডাকা হয়।

Related Articles

Close