আন্তর্জাতিক ফুটবলফুটবল

রোনালদোর অভাব পূরণে যাদেরকে দলে ভেড়াতে চাচ্ছে রিয়াল!

১১২ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে রিয়াল মাদ্রিদ থেকে ইতালিয়ান ক্লাব জুভেন্টাসে যোগ দিচ্ছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। এখন রোনালদোর অভাব পূরণের জন্য রিয়াল মাদ্রিদ কর্তৃপক্ষ যাদেরকে দলে ভেড়াতে পারে তারা হলো:-

১) নেইমার ডি সিলভা সন্তোস জুনিয়র:- রিয়ালের প্রধান টার্গেট হবে নেইমার সে কথা বলার অপেক্ষা রাখে না। রোনালদো আর নেইমারের বয়সের পার্থক্য ৭ বছর। দুইজন খেলেন ও একই পজিশনে। গত বছর ই বার্সা ছেড়ে ২২২ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে পিএসজিতে যোগ দেন তিনি।

নেইমার রিয়ালে আসলে ট্রান্সফার এর অংকটা যে আকাশ ছুঁবে সেটা অনুমিতই। আর আমরা জানি রিয়াল সব থেকে সেরা খেলোয়ারটিকেই সব সময় দলে আনার চেষ্টা করে।

২) কিলিয়ান এমবাপ্পে:- নেইমারের ক্লাব সতীর্থ এমবাপ্পে বর্তমান বিশ্বের তরুণ খেলোয়াড়দের মধ্যে অন্যতম সেরা। তার প্রতিভা সম্পর্কে কার ও কোন দ্বিমত নেই। এই বিশ্বকাপে সে তার প্রতিভার বহিঃপ্রকাশ ভালোই ঘটাচ্ছেন।

৩)এডেন হ্যাজার্ড:- বেলজিয়ামের সোনালী প্রজন্মের অন্যতম সেরা কান্ডারি চেলসির এডেন হ্যাজার্ড। তার নেতৃত্বেই মূলত বেলজিয়াম এবারের বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে উত্তীর্ণ হয়েছে। তার গতি, ড্রিবলিং,হেডিং সাথে গোল স্কোরিং ক্ষমতা সব ই রোনালদোর অভাব পূরনে সমর্থ হবে।

৪) হ্যারি কেইন: ইংল্যান্ডের অধিনায়ক হ্যারি কেইন একজন পিওর গোলস্কোরার। রোনালদোর মতো সে ভুড়িভুঁড়ি গোল করবে। যদিও রোনালদোর মতো গতি, ড্রিবলিং নেই কেইন এর তারপরেও কেইনকে কিনতে পারলে রিয়ালের গোল পাওয়া নিয়ে সমস্যা হবে না।

কেইন কি করতে সক্ষম সেটা তো আমরা এই বিশ্বকাপে দেখেছি। সর্বোচ্চ ৬ টি গোল করে সে বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ গোলস্কোরার। গত বিশ্বকাপের গোল্ডেন বুটজয়ী হামেস রড্রিগেজকে কিনেছিল রিয়াল, এইবার ও কেইন এর জন্যে বিড করলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

৫) মোহাম্মদ সালাহ:- মিশরের মেসি নামে পরিচিত মোহাম্মদ সালাহ তার দেশকে একক প্রচেষ্টায় বিশ্বকাপের মূল পর্বে নিয়ে গেছেন।

ক্লাব ফুটবলে মেসি-রোনালদোর পরেই গত মৌসুমে সালাহর নাম ই অধিক উচ্চারিত হয়েছে। লিভারপুলকে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ফাইনালে নিযে সালাহ অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন।

৬) মাউরো ইকার্ডি: ইন্টার মিলানের ক্যাপ্টেন মাউরো ইকার্ডি গত মৌসুমে সিরি-আ তে অনেক ভালো একটা সিজন কাটিয়েছেন। গোল করাই তার জুড়ি মেলা ভার। জুভেন্টাস এই সাথে একেবারে সিজনের শেষ পর্যন্ত শিরোপাজয়ের জন্য লড়াই করেছিল ইন্টার মূলত ইকার্ডির কারণেই। যদিও আর্জেন্টাইন বিশ্বকাপ স্কোয়াডে জায়গা পান নি ইকার্ডি তার পর ও বলা যায় রিয়ালের জন্যে সে একটা ভালো সাইনিং ই হবে।

দেখা যাক রিয়াল কি করে, ট্রান্সফার এর সময় শেষ হওয়ার বেশি দেরী নেই। নতুন মৌসুমে রিয়াল সর্বাধিক শিরোপাজয়ের লক্ষেই যে মাঠে নামবে সে কথা বলার অপেক্ষা রাখে না।

রোনালদোর অভাব পূরণ করা; কথাটা শুনতে যতটা সহজ বাস্তবে কিন্তু তার থেকেও বেশি কঠিন।

Related Articles

Close