আন্তর্জাতিক ফুটবলফুটবল

ব্রাজিলের অন্যতম ভরসা নেইমারের অজানা তথ্য

কাল থেকেই শুরু হচ্ছে ২০১৮ রাশিয়ার বিশ্বকাপ। এবার বিশ্বকাপে ফেবারিট ধরা হয় যে দল গুলোকে তার মধ্যে অন্যতম হল ব্রাজিল। এবার জেন নেওয়া যাক ব্রাজিলের অন্যতম ভরসা নেইমারের অজানা তথ্য:
নামঃ নেইমার দ্য স্যান্টোস জুনিয়র।দেশঃ ব্রাজিল। জন্মঃ ৫ ফেব্রুয়ারি ১৯৯২। বর্তমান বয়সঃ ২৬ বছর। খেলার ধরনঃফরোয়ার্ড। উচ্চতা: ৫ ফুট ৯ ইঞ্চি। ক্লাব: প্যারিশ সেন্ট জার্মান। জার্সি নম্বর: ১০

নেইমারে ক্লাব কেরিয়ার: ১৯৯৯-২০০৩ পর্যন্ত পোর্তুগিজ স্যান্টিস্তার যুব দলে ফুটবলে খেলেছেন নেইমার৷২০০৩ থেকে ২০০৯ স্যান্টোসের জুনিয়র দলে কাটিয়েছেন তিনি৷ব্রাজিলের সবচেয়ে দামী তারকা ফুটবলারের সিনিয়র ফুটবল কেরিয়ার শুরু হয় ২০০৯ সালে স্যান্টোসের হয়েই৷২০০৯ থেকে ২০১৩ এই ক্লাবে কাটিয়েছেন নেইমার৷এই সময় ১০২টি ম্যাচে ৫৪ টি গোল করেন ব্রাজিলের ব্ল্যাক হর্স৷ ২০১৩-১৭ বার্সেলোনাতে কাটান নেইমার৷ স্প্যানিশ ফুটবল জায়েন্টদের হয়ে ১২৩ ম্যাচে ৬৮ গোল রয়েছে ব্রাজিলের বর্তমান দলের সবচেয়ে প্রতিভাবান এই ফুটবলারের৷ ২০১৭ সালে ২২২ মিলিয়ন ডলারের মত বড় মূল্যে প্যারিস সেন্ট-জার্মান দলে নাম লেখান এই ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড৷ ক্লাবটির হয়ে এখনো অবধি ২০ ম্যাচে ১৯টি গোল রয়েছে নেইমারের৷

আন্তর্জাতিক কেরিয়ার: ২০০৯-২০১৬ ব্রাজিলের বয়সভিত্তিক জাতীয় দলের হয়ে ফুটবল খেলেছেন নেইমার৷ অনূর্ধ্ব-১৭ দলের হয়ে ৩ ম্যাচে ১টি, অনূর্ধ্ব-২০ দলের হয়ে ৭ ম্যাচে ৯টি, অনূর্ধ্ব-২৩ দলের হয়ে ১৪ ম্যাচে ৮টি গোল করছেন নেইমার জুনিয়র৷

ব্রাজিল জাতীয় দল (সিনিয়র): ২০১০ থেকে এ ২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপের আগে পর্যন্ত ব্রাজিলের জাতীয় দলের জার্সি গায়ে ৮৫ ম্যাচে ৫৫টি গোল করেন৷১০ আগাস্ট ২০১০ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ম্যাচে ব্রাজিলের জাতীয় দলের জার্সি গায়ে আন্তর্জাতিক ডেবিউ করেন নেইমার।২০১৩ কনফেডারেশন কাপে জাপানের বিরুদ্ধে ম্যাচে প্রথম গোল৷৩-০ ম্যাচটি জেতে ব্রাজিল৷পরের মেক্সিকো এবং ইতালির বিরুদ্ধের ম্যাচেও ধারাবাহিকভাবে গোল করেন এই ব্রাজিলিয় তারকা ফরোয়ার্ড এবং ফাইনালে স্পেনের বিরুদ্ধেও একটি গোল করেন নেইমার৷২০১৩ কনফেডারেশন কাপ জেতে ব্রাজিল৷

ফিফা ওয়ার্ল্ড কাপ (২০১৪): ৫ ম্যাচে ৪ গোল৷ জয়-৪, ড্র-১, হার-০
অলিম্পিক (২০১২, ২০১৬ ): লন্ডন মিশরের বিরুদ্ধে ম্যাচে প্রথম অলিম্পিক গোল করেন নেইমার৷ এই ২০১২ অলিম্পিকেই চিনের বিরুদ্ধে প্রথম আন্তর্জাতিক হ্যাটট্রিক করেন।
পুরস্কার: ২০১১ সালে ফিফার ক্লাব বিশ্বকাপে ব্রোঞ্জ বল জেতেন নেইমার৷ব্রাজিলের এই তারকা ফরোয়ার্ড ২০১১ সালে ফিফার পুসকাস পুরস্কার জেতেন৷ফিফা কনফেডারেশন কাপ ২০১৩ সালে গোল্ডেন বল এবং ব্রোঞ্জ বুট জেতেন৷২০১৪ সালের ফুটবল বিশ্বকাপে ব্রোঞ্জ বুটের দখল নেন নেইমার৷

Related Articles

Close