আন্তর্জাতিক ফুটবলওয়ার্ল্ডকাপ ২০১৮ফিফা ওয়ার্ল্ড কাপ ২০১৮ফুটবল

যাতে করে খেলার গতি নষ্ট না হয়, সেই জন্য এবারের বিশ্বাকাপে এই সিদ্ধান্ত

অফসাইডের পতাকা উঠলেই হলো, খেলা সেখানেই শেষ। দুর্দান্ত গোল অনেক সময় ভেনিস হয়ে যায় অফসাইডের ফাঁদে পড়ে। তবে অফসাইড যে সব সময় সঠিক হয় তেমনটাও নয়। অনেক সময় রেফারির ভুলে খেলার গতিই নষ্ট হয়ে যায়।

তবে বিশ্বকাপে যেন তেমনটা না হয় সেজন্যই ব্যবস্থা নিচ্ছে ফিফা। লাইন্সম্যানদের বলে দেয়া হয়েছে, একমাত্র শতভাগ নিশ্চিত না হয়ে যেন অফসাইডের পতাকা না উঠায়। যদি শতাভাগ নিশ্চিত হয় তাহলেই অফসাইডের পতাকা উঠাতে বলা হয়েছে তাদের। যাতে করে খেলার গতি নষ্ট না হয়, সেই জন্য এবারের বিশ্বাকাপে এই সিদ্ধান্ত।

কিন্তু যদি অফসাইড হলো, কিন্তু রেফারি দোটানায় থেকে পতাকা তুলল না এবং সেখান থেকে গোল হলো তখন কি হবে?

সেটা নিয়েও চিন্তা নেই। যদি গোল হয় তখন ভিডিও রেফারি পরীক্ষা করে দেখবে সেটা কোন অফসাইড ছিল কি না। যদি অফসাইড হয় তখন গোল বাতিল করা হবে।

রাত পোহালেই রাশিয়া বিশ্বকাপ, দেখবেন যেসব চ্যানেলে

দরজায় কড়া নাড়ছে ফুটবল বিশ্বকাপ। আগামীকাল ১৪ জুন বৃহস্পতিবার পর্দা উঠবে বহুল প্রতিক্ষীত রাশিয়া ফুটবল বিশ্বকাপের। মাসব্যাপী সেই উন্মাদনায় মেতে উঠতে প্রস্তুত পুরো বিশ্ব। ইতিমধ্যেই রাশিয়ায় বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সকল প্রস্তুতি প্রায় শেষের দিকে। নিজের দেশের সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যকে পুরোপুরি তুলে ধরতে এখন ব্যস্ত রাশিয়া।

১৪ জুন মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে উদ্বোধন হবে রাশিয়া বিশ্বকাপ। বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচেই স্বাগতিক দেশ রাশিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামবে সৌদি আরব। মোট ১১টি শহরে অনুষ্ঠিত হবে ৬৪টি ম্যাচ। এবারও অংশ নিচ্ছি ৩২টি দল।

সারা বিশ্বের দর্শকের নজর থাকবে টেলিভিশনের দিকে। ফিফার কাছ থেকে মুল সম্প্রচার স্বত্ব কিনেছে সনি। তাদের কাছ থেকে দুবাই ভিত্তিক এলএসডি মিডিয়ার হাত বদল হয়ে বাংলাদেশের সম্প্রচার স্বত্ব কিনেছে স্কয়ার গ্রুপের মিডিয়া কম, কে স্পোর্টস, জিরো মিডিয়া ও জাদু মিডিয়া লিমিটেড। এই চার কোম্পানির কনসোর্টিয়ামে বিশ্বকাপ ফুটবল বাংলাদেশে দেখাবে মাছরাঙ্গা, নাগরিক টিভি ও বাংলাদেশ টেলিভিশন।

বিশ্বকাপের ৬৪ ম্যাচের মধ্যে এ তিনটি টেলিভিশন সরাসরি সম্প্রচার করবে উদ্বোধনী ম্যাচ, সেমিফাইনাল ও ফাইনালসহ ৫৬ টি ম্যাচ।

বাংলাদেশে প্রিয় দলের ভক্ত ও সমর্থকদের আয়োজনের শেষ নেই। প্রিয় দলের পতাকা ও জার্সি কিনতে ভিড় দোকানগুলোতে। বিশ্ব সেরা হতে লড়াইয়ে নামবেন
মেসি-রোনালদো-নেইমাররা। পুরো বিশ্বের চোখ থাকবে রাশিয়ার দিকে।

পছন্দের দলকে সমর্থন জানাতে প্রস্তুত দেশের ফুটবলপ্রেমীরা। বাড়ির ছাদগুলো এরই মধ্যে ছেয়ে গেছে প্রিয় দলের পতাকায়। বিশ্ব ফুটবলের এই উন্মাদনাকে কেন্দ্র করে চলছে পতাকা আর জার্সির বাণিজ্য। দোকানে দোকানে ক্রেতা-ভক্তদের ভিড়। রাস্তার ফেরিওয়ালা থেকে শুরু করে ফুটপাতের দোকান সর্বত্রই পতাকা ও জার্সির সমারোহ। বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষও কিনছেন প্রিয় দলের পতাকা ও জার্সি।

রাজধানীর অভিজাত শপিংমলেও সমর্থকরা ভিড় জমান প্রিয় দলের জার্সি কিনতে। বিশ্বকাপ ফুটবলের এই উন্মাদনা থাকবে পুরো জুন-জুলাই মাস জুড়েই।

Related Articles

Close