ওয়ার্ল্ডকাপ ২০১৮ফুটবল

রাশিয়া বিশ্বকাপে বাংলাদেশের একক আধিপত্য

রাশিয়া বিশ্বকাপ শুরু হতে বাকি আছে হাতে গোনা কয়েকটি দিন। বিশ্বকাপের পর্দা উঠতে দিক কয়েক বাকি থাকলেও বিশ্ব ইতিমধ্যেই মেতে উঠেছে বিশ্বকাপ উন্মাদনায়।

তবে খুশির খবর হচ্ছে বিশ্বকাপ উন্মাদনার তুঙ্গে থাকা বাংলাদেশে আধিপত্য থাকছে এবারের বিশ্বকাপে। আর এজন্য অবশ্যই বাংলাদেশ ও বাঙালী হিসেবে আমরা গর্বিত।

অবাক হওয়ার কিছু নেই কারন, মেসি, ইনিয়েস্তা বা মুলারের গায়ে চেপেই আধিপত্যে বাংলাদেশ।

একটি বেসরকারী সংস্থা কিট স্পন্সর হওয়ায় তারা বাংলাদেশ থেকে তৈরি করেছে মেইড ইন বাংলাদেশ লেখা অফিসিয়াল জ্যাকেট। জ্যাকেট তৈরি করা হয়েছে আর্জেন্টিনা, মেক্সিকো, স্পেন, জার্মান সহ আরো দলের জ্যাকেট। সে হিসেবেই আধিপত্য রয়েছে বাংলাদেশের।

ফিফা র‌্যাঙ্কিং এর ১৯৭ এ থাকা বাংলাদেশের জার্সি গায়ে ফুটবল বিশ্বকাপের মঞ্চে দেখা যাবে বিশ্ব সেরা ফুটবল তারকাদের।

জানা যায়, চট্রগ্রামের কর্ণফুলি শু ইন্ডাস্ট্রিজে ২০১৭ সালের আগষ্টে শুরু হয় জ্যাকেট তৈরির কাজ। যে জ্যাকেট গুলোতে লেখা রয়েছে মেইড ইন বাংলাদেশ, এটাই প্রাপ্তি আমাদের কেননা অন্য কোন দেশ একসাথে এত দেশের জার্সি তৈরি করেনি।

 

‘অধিনায়ক হিসেবে সাকিবের মন্তব্যটা করা ঠিক হয়নি’

আইসিসি টি-টোয়েন্টি র‍্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশের চেয়ে দুই ধাপ এগিয়ে আটে রয়েছে আফগানিস্তান। আর এই দলের বিপক্ষে আগামীকাল মাঠে নামতে যাচ্ছে সাকিব-তামিমরা। ওয়ানডেতে বাংলাদেশের চেয়ে আফগানিস্তান অনেক পিছিয়ে থাকলেও টি-টোয়েন্টিতে আফগানদের শক্তিমত্তার সবারই ধারণা রয়েছে। এই সিরিজে বাংলাদেশের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ হবে রশিদ খানকে মোকাবিলা করা।

আফগানিস্তান যে টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের চেয়ে এগিয়ে রয়েছে সেটা ভালো করেই জানেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। তাইতো দেশ ছাড়ার আগে এই সিরিজে আফগানিস্তানকেই ফেভারিট দাবি করে গেছেন তিনি। তবে তার বক্তব্যের সাথে একমত হননি বাংলাদেশ দলের সাবেক অধিনায়ক আমিনুল ইসলাম বুলবুল। প্রথম আলোকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, একজন দলের নেতা হিসেবে এমন মন্তব্য করা উচিৎ হয়নি সাকিবের।

‘আমার মনে হয় অধিনায়ক হিসেবে সাকিবের এটা বলা ঠিক হয়নি। এটা মনস্তাত্ত্বিক কোনো ব্যাপার কি না জানি না। যখন এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের উন্নয়ন কর্মকর্তা ছিলাম, আফগানিস্তানকে খুব কাছ থেকে দেখেছি। তাঁদের অনেক তরুণ প্রতিভাবান খেলোয়াড়ের খবর পেতাম। ওরা অবশ্যই প্রাণপণ চেষ্টা করবে।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘তারা ভাবে, এই মুহূর্তে যে টেস্ট খেলুড়ে দলটিকে হারানোর সামর্থ্য রাখে, সেটি হচ্ছে বাংলাদেশ। ২০১৫ বিশ্বকাপেও তারা চেষ্টা করেছে হারাতে। তবুও বলব, বাংলাদেশ যথেষ্ট এগিয়ে।’

টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের সামর্থ্য নিয়ে নামের পাশে কোশ্চেন মার্ক থাকতো সবসময়ই। নিদাহাস ট্রফির পারফরম্যান্স দিয়ে কিছুটা হলেও সেটি সরাতে পেরেছে বাংলাদেশ। র‍্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশের চেয়ে আফগানরা এগিয়ে থাকলেও নিদাহাস ট্রফিতে ফিরে পাওয়া আত্মবিশ্বাস এই সিরিজে বাংলাদেশকেই এগিয়ে রাখবে বলে মনে করছেন আমিনুল ইসলাম বুলবুল।

‘নিদাহাস ট্রফিতে বাংলাদেশ যে ক্রিকেট খেলেছে বা বাংলাদেশ যে মানের ক্রিকেট এখন খেলছে, সে অনুযায়ী খেললে এ সিরিজ নিয়ে চিন্তার কোনো কারণ দেখি না। বাংলাদেশ অনেক এগিয়ে আছে, পরিণত দল। আশা করি, সিরিজটা জিতবে তারা।’

আগামীকাল দেরাদুনের রাজিব গান্ধী স্টেডিয়ামে তিন ম্যাচ টি-২০ সিরিজের প্রথম ম্যাচে মাঠে নামবে দুই দল। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৮টায়। খেলাটি সরাসরি দেখাবে জিটিভি ও চ্যানেল আই।

Related Articles

Close