আন্তর্জাতিক ক্রিকেটক্রিকেট

তামিমের ব্যাটিং দেখে যা বললেন আফ্রিদি

উইন্ডিজের কাছে অসহায় আত্মসমর্পণ করেছে তামিম ইকবাল-শহিদ আফ্রিদিদের বিশ্ব একাদশ। এদিন বিশ্ব একাদশকে ৭২ রানে হারায় কার্লোস ব্রাথওয়েটের দল। আর বিশ্ব একাদশকে বাজিমাত করার এই দিনে উইন্ডিজদের পক্ষে দারুণ বোলিং করেছেন কেসরিক উইলিয়ামস। আর ব্যাট হাতে ক্যারিবিয়ানদের হয়ে দারুণ খেলেছেন ওপেনার এভিন লুইস।

গুরুত্বপূর্ণ এইম্যাচ দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচ খেলতে নেমেছিলেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি। আর এমন ম্যাচ আয়োজনের জন্য আইসিসিকে ধন্যবাদ জানান এই পাকিস্তানী তারকা।

বিশ্ব একাদশের হয়ে খেলতে পেরে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছেন আফ্রিদি। তার ফিটনেস নিয়ে সমস্যা থাকা সত্ত্বেও তিনি এই ম্যাচে খেলেছেন বলেও জানান তিনি। ম্যাচ শেষে পুরস্কার বিতরণী অনুস্থানে বিশ্ব একাদশকে নেতৃত্ব দেয়া আফ্রিদি বলেন

তারা চ্যাম্পিয়ন্স এবং তারা চ্যাম্পিয়নের মতই খেলেছে। আইসিসিকে ধন্যবাদ জানাই আমন্ত্রণ জানানোর জন্য। আমরা একে অপরকে এভাবেই সাহায্য করতে পারি, ক্রিকেটকে ছড়িয়ে দেয়ার জন্য।

সবার পাশে দাঁড়াতে পারি ক্রিকেটের মাধ্যমে।আমি ভাগ্যবান যে লর্ডসে নিজের ক্রিকেট ক্যারিয়ারের ইতি টেনেছি। কোচ অ্যান্ডি ফ্লাওয়ার এবনভ সবাইকে ধন্যবাদ জানাই। ফিটনেস নিয়ে একটু সমস্যা ছিল আমার, তারপরও আমি এখানে এসেছি কারণ এটা একটা ভালো উদ্যোগের জন্য।

এরপর প্রশ্ন করা হয় আপনাদের ব্যাটিং এত খারাপ হওয়ার কারন কি? আফ্রিদি হেসে দিয়ে বলেন নিজেই তু ফিট ছিলাম না,অন্যদের সম্পর্কে কি বলবো? তামিমের ব্যাটিং নিয়ে আমার যথেষ্ট ধারনা আছে সে যেদিন জ্বলে উঠে সেদিন ম্যাচটা তার অনুকুলে এসে যায়।

গতকাল বাঙ্গালি বাবু খারাপ খেলেছে রঙ্কিও কাহারপ খেলেছে কার্তিকও খারাপ খেলেছে আমি নিজেও খারাপ খেলেছি হাহাহ। তারপরও ধন্যবাদ জানাই আবার আইসিসিকে এমন একটা সুন্দর আয়োজনের জন্য।

যেসব কারণে হেরেছে বিশ্বএকাদশ-গতকাল বিশ্বএকাদশ ওয়েষ্ট ইণ্ডিসের কাছে যেন পাত্তাই পেলোনা বর ব্যবধানে হেরে গেল বিশ্বে একাদশ। বিশ্বএকাদশে বাংলাদেশের হয়ে খেলেছিলেন তামিম ইকবাল। ৭২ রানের বিশাল ব্যবধানে হেরে যায় বিশ্বএকাদশ। ওয়েষ্ট ইন্ডিসের দেওয়া ১৯৯ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ১২৭ রানে গুটিয়ে যায় বিশ্বএকাদশ। ১৬.৪ ওভারে এই রান করে বিশ্বএকাদশ।

এত বাঘা -বাঘা প্লেয়ার নিয়ে সাজানো হল বিশ্ব একাদশ তবে কেন তারা হেরে গেল। এখানে একটি কথা সবাই জানেন এক -এক দেশ থেকে খেলোয়ার নিয়ে সাজানো হয় এই বিশ্বএকাদশ।

তবে কি এই খেলোয়ার দের মধ্যে তেমন দলীয় মনোভাব গড়ে উঠেনী। না একে অপরকে মেনে নিতে পারেনী। আমারা জানি ক্রিকেট ভদ্র খেলা তবে সেখানে খেলা নিয়ে যে দেশে দেশে রেষা-রেশি নাই সেটা বলা যাবেনা।

বিশ্ব একাদশের খেলোয়ারদের মনে হয়েছে অকাতরে উইকেট বিলিয়ে দিয়েছেন তারা। জাষ্ট গেছেন খেললেন কিন্তু দলীয় কোন মোটিভ ছিল না এখানে। যেটা তাদেরকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যেতে পারত।

অনেকেই মনে করছেন ছন্নছাড়া একটা দল ছিল বিশ্বএকাদশ। তাইতো এত ভড়াডুবি। তবে কয়েকজন যে দ্বায়ীত্ব নিয়ে খেলছেন সেটা না বললে তাদের প্রতি অন্যায় করা হবে। কিন্তু টিম ওয়ার্কের অভাবেই হেরেছে বিশ্বএকাদশ।

রশিদ খান আইপিএলে চমক দেখালেন কিন্তু বিশ্বএকাদশে দেখার অপেক্ষায় ছিল তার ভক্তরা হ্যা তিনি নিয়েছেন ২ উইকেট তবে রান দিয়েছেন ৪৮টি ২৪ বলে।যাইহোক ওয়েষ্ট ইন্ডিস দেখিয়ে দিয়েছে বিশ্ব তাদের কাছে তুচ্ছে একাদশ।

Related Articles

Close