আন্তর্জাতিক ক্রিকেটক্রিকেট

যে কারণে ব্যক্তিগত নিরাপত্তারক্ষীতে বিরাট স্বাচ্ছন্দবোধ করেন না

মাস ছয়েক আগে বলিউড কুইন আনুশকার সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হলেও তিনি এখনও মহিলাদের ‘হার্টথ্রব’৷ বাইশ গজের বাদশা ক্রিকেটবিশ্বেও ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’৷ তাই নিরাপত্তার বেড়াজালে বেষ্টিত বিরাটের ব্যক্তিগত জীবন৷ কিন্তু এতে মোটেই স্বাচ্ছন্দবোধ করেন না ‘ক্যাপ্টেন হট’৷

সেলিব্রিটি হয়ে গেলে হারিয়ে যায় সাধারণ জীবনযাত্রা৷ ব্যক্তিগত নিরাপত্তারক্ষীর বেষ্টনিতে করতে হয় হাঁটাচলা৷ টিম ইন্ডিয়ার ক্যাপ্টেন বিরাট কোহলিও এর ব্যক্তিক্রম নন৷ কিন্তু এতে নাখুশ বিরাট বলেন, ‘ব্যক্তিগত জীবনে নিরাপত্তারক্ষী ঘেরা টোপে থাকাটা কখনও কখনও অস্বস্তিবোধ হয়ে ওঠে৷ তবে আমি জানি, কীভাবে এটা সামলাতে হয়৷ ভুলে গেলে হবে না সেলিব্রিটিরাও অন্যদের মতো সাধারণ মানুষ৷ আমার মনে হয়, ফ্যানেদের উচিত সেলিব্রিটিদেরও ব্যক্তিগত জায়গা দেওয়া৷’

তবে ব্যক্তিগত ও পেশাগত জীবনে কীভাবে সমতা রেখে চলতে হয় তা জানেন বিরাট৷ তিনি বলেন, ‘ব্যক্তিগত ও পেশাগত জীবনে কীভাবে সমতা রক্ষা করে চলতে হয়, আমি তা জানি৷ যখন আমি পরিবারের সঙ্গে থাকি, তখন ক্রিকেটকে দূরে সরিয়ে রাখি৷ বন্ধুদের সঙ্গে সিনেমা দেখা অথবা লং ড্রাইভে চলে যাই৷ কখনও আবার প্রিয় কুকুরটির সঙ্গে সময় কাটায়৷

 

পাকিস্তান ও উইন্ডিজের বিপক্ষে হচ্ছে না বাংলাদেশের খেলা

আগামী জুলাই আগস্টে যুক্তরাষ্ট্রের মাটিতে পাকিস্তান ও উইন্ডিজের বিপক্ষে একটি ত্রিদেশীয় টি২০ সিরিজ খেলার কথা ছিল বাংলাদেশ দলের। সঙ্গত কারণে সিরিজটি হচ্ছেনা। এমনটাই জানিয়েছে ডেইল এক্সপ্রেস।

উইন্ডিজের ব্যস্ত সূচির কারণেই সিরিজটি আয়োজন করা সম্ভব হচ্ছে না বলে জানিয়েছে তারা। এই ত্রিদেশীয় সিরিজটি ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লীগের (সিপিএল) সাথে সাংঘর্ষিক হওয়ার খেলতে চাইছে না ক্যারিবিয়ানরা।

জুনের প্রথম সপ্তাহেই আফগানিস্তানের সাথে ৩ ম্যাচের টি২০ সিরিজ খেলতে ভারত যাবে বাংলাদেশ দল। তারপরই পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে উইন্ডিজ সফরে যাওয়ার কথা সাকিবদের। সেখানে টি২০ সিরিজের বদলে দুই বোর্ডের সম্মতিতে যুক্তরাজ্যে ত্রিদেশীয় টি২০ সিরিজ আয়োজনের কথা ছিল।

তবে, এই সিরিজটি হচ্ছে না এবার। চলতি বছর বাংলাদেশ দলের ব্যস্ত সূচি রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে টি২০ সিরিজ খেলেই আরব আমিরাতে এশিয়া কাপে খেলতে যাওয়ার কথা ছিল বাংলাদেশ দলের। বাংলাদেশের পাশাপাশি পাকিস্তান দলও এবছর ব্যস্ত সময় কাটাবে।

বর্তমানে তারা ব্যস্ত আয়ারল্যান্ডের অভিষেক টেস্টে। তারপর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ খেলবে তারা। তারপরই যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশ ও উইন্ডিজের বিপক্ষে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলার কথা ছিল পাকিস্তানিদের। এই সিরিজটি না হলে সবচেয়ে ক্ষতি হবে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বাংলাদেশিদের।

তাদের কথা চিন্তা করেই ফ্লোরিডাতে খেলতে রাজি হয়েছিল বাংলাদেশ দল। ব্যস্ত সূচির কারণে জুলাই -আগস্টে সিরিজটি না হলে। চলতি বছর সিরিজটি মাঠে গড়ানোর আর সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। যদিও এই বিষয়ে উইন্ডিজ ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে কোনো বার্তা পাওয়া যায়নি।

Related Articles

Close