আন্তর্জাতিক ক্রিকেটক্রিকেট

হরভজনের কাছে ‘ক্ষমা’ চেয়ে টুইট সৌরভের! যে কারণে বিলম্বে বোধোদয়

সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কেও কিনা শেষ পর্যন্ত ‘ক্ষমা’ চাইতে হল! অন্য কারোর কাছে নয়, তাঁরই ভাবশিষ্য হরভজন সিংহের কাছে। অবশ্য পুরোটাই মজার মোড়কে। যা নিয়ে আপাতত তোলপাড় সোশ্যাল মিডিয়া।

আপাতত জাতীয় দলের বাইরে রয়েছেন হরভজন সিংহ। পঞ্জাবের হয়ে কিছুদিন আগে বাংলার বিরুদ্ধে রঞ্জি ম্যাচেও অংশ নিয়েছেন ভাজ্জি। যদিও হারের মুখ থেকে বাঁচাতে পারেননি নিজের দলকে।

বাংলার কাছে হারলেও সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ছোটখাটো যুদ্ধ আপাতত জিতলেন তিনি। ঘটনা অবশ্য পুরোটাই অক্রিকেটীয়। বলিউড অভিনেত্রী স্ত্রী গীতা বসরা’কে নিয়ে চলতি সপ্তাহের সোমবার অমৃতসরের স্বর্ণ মন্দিরে গিয়েছিলেন টার্বুনেটর।

সেখানে স্বর্ণমন্দিরের সামনে সস্ত্রীক একটি সেলফি তোলেন তারকা স্পিনার। স্ত্রীর কোলে ছিলেন তাঁদের পুঁচকে মেয়ে হিনায়া। সাধারণ দৃষ্টিতে মনে হবে আর-পাঁচটা দম্পতির মতো পারিবারিক ছবি।

ছবিটি ভাজ্জি টুইট করেন। ছবির সঙ্গে তিনি লেখেন, ‘‘সতনাম শ্রী ওয়াহেগুরুজী… সব নু খুশ তে তন্দুরস্ত রাখনা মালিক।’’ বাংলায় অনুবাদ করলে যা দাঁড়ায়— সবাইকে হাসিখুশি আর সুস্থ রেখ ঈশ্বর। টুইটে স্ত্রীকে ট্য়াগও করেছেন তিনি।
এই ছবিটিই আবার বিড়ম্বনায় ফেলে দিয়েছে মহারাজকে। হরভজনের পারিবারিক ছবির নিচে নিজের স্নেহ জানাতে তাতে মন্তব্য করেন সৌরভ। মহারাজ লেখেন, ‘‘বেটা বহুত সুন্দর হ্য়ায় ভাজ্জি…বহুত প্য়ায়ার দেনা।’’ —তোর ছেলে খুব সুন্দর ভাজ্জি…অনেক ভালোবাসা দিস।

তবে নিজের টুইট করার পর সৌরভ বুঝতে পারেন একটা গোলমাল পাকিয়েছেন তিনি। আসলে তিনি হরভজনের মেয়েকে ছেলে বলে ভুল করে ফেলেন। সঙ্গে সঙ্গে আর একটি টুইট করেন তিনি। সেখানে তিনি লেখেন, ‘‘মাফ করনা! বেটি বহুত সুন্দর হ্যয়। গেটিং ওল্ড ভাজ্জি।’’ যার অর্থ— ভুল হয়ে গিয়েছে, মেয়ে খুব সুন্দর…বুড়ো হয়ে যাচ্ছি ভাজ্জি।

সৌরভ বাইশ গজ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন অনেকদিনই হল। হরভজনও কেরিয়ারের সায়াহ্নে। তবে ক্যাপ্টেনের সঙ্গে সতীর্থ ক্রিকেটারের এই হালকা টুইট-যুদ্ধ নিয়েই সোশ্যাল মিডিয়ায় আপাতত ব্যস্ত।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close