আন্তর্জাতিক ক্রিকেটক্রিকেট

তবে কি কোহলি-আনুশকাকে নকল করলেন রাজ-শুভশ্রী?

দীর্ঘ চার বছর প্রেম করার পর গত বছরের ডিসেম্বরে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও বলিউড অভিনেত্রী আনুশকা শর্মা। বেশ কিছুদিন ধরেই তাদের বিয়ের খুটিনাটির খবরে তোলপাড় ছিল আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম। ইতোমধ্যে কোহলি-আনুশকার সেই বিয়ের পাঁচ মাস পেরিয়ে গেছে।

এর মাঝে বিয়ে করেছেন বলিউডের আরও দুই অভিনেত্রী সোনম কাপুর ও নেহা ধুপিয়া। এ ছাড়া কদিন আগেই বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন টালিউডের পরিচালক রাজ চক্রবর্তী ও অভিনেত্রী শুভশ্রী গাঙ্গুলি। জৌলুসের দিক থেকে বলিউড অভিনেত্রীদের টেক্কা দিতে না পারলেও টালিউডে ঠিকই তাক লাগিয়ে দিয়েছেন এই জুটি।

এই জুটির বিয়ে ও বিবাহোত্তর সংবর্ধনার ছবিগুলো মনে করিয়ে দিল কোহলি-আনুশকাকে। আর মনে হবেই বা না কেন? বিয়ে ও বিবাহত্তোর সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে শুভশ্রীর সাজ ও পোশাক দেখে যে কারোরই মনে হবে, কোহলি-আনুশকাকে বুঝি নকলই করেছেন রাজ-শুভশ্রী!

 আনুশকার বিবাহত্তোর সংবর্ধনার বেনারসি ও শুভশ্রীর বিয়ের বেনারসির রং আর ডিজাইন একই রকম। ছবি: সংগৃহীত

আনুশকার বিবাহত্তোর সংবর্ধনার বেনারসি ও শুভশ্রীর বিয়ের বেনারসির রং আর ডিজাইন একই রকম। ছবি: সংগৃহীত

বিয়েতে শুভশ্রী যে লাল রঙের বেনারসি পরেছিলেন সেই একই রকমের শাড়িতে দেখা গিয়েছিল আনুশকাকেও, তার দিল্লিতে অনুষ্ঠিত বিবাহোত্তর সংবর্ধনাতে। একই রং, একই রকমের ডিজাইন! আবার আনুশকা মুম্বাইয়ের বিবাহোত্তর সংবর্ধনাতে পরেছিলেন লেহেঙ্গা। ওই লেহঙ্গার থিম, রং ও ডিজাইনের সঙ্গে বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে পরা শুভশ্রীর শাড়ির সঙ্গে অদ্ভুত সাদৃশ্য দেখা মিললো।

দুই তারকা দম্পতির বিবাহত্তোর সংবর্ধনার পোশাকের থিমেও ছিল আশ্চর্য রকমের মিল। ছবি: সংগৃহীত

দুই তারকা দম্পতির বিবাহত্তোর সংবর্ধনার পোশাকের থিমেও ছিল আশ্চর্য রকমের মিল। ছবি: সংগৃহীত

এত মিল দেখে ভারতীয়দের তাই মন্তব্য, কোহলি-আনুশকাকে নকল করেছেন রাজ-শুভশ্রী দম্পতি!

 

মাশরাফিদের কী বলে গেলেন গ্রিনিজ

 

যে সাফল্যটা এনে দিয়েছিলেন আকরাম খান-আমিনুল ইসলাম বুলবুল-মিনহাজুল আবেদিন নান্নু; তার কান্ডারি ছিলেন কোচ গর্ডন গ্রিনিজ। ১৯৯৭ সালে বাংলাদেশের আইসিসি ট্রফি জয়ের পেছনে যার অবদান ছিল অবিস্মরণীয়। সেই গ্রিনিজ ১৯ বছর পর ঢাকায় এলেন। বর্তমান দলের সঙ্গে এক সৌজন্য সাক্ষাৎ করে গেলেন। দিয়ে গেলেন সফলতার টোটকা।

১৬ মে, বুধবার মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে উপস্থিত হন বাংলাদেশ দলের সাবেক কোচ গর্ডন গ্রিনিজ। সেখানে মাশরাফি বিন মুর্তজা-মুশফিকুর রহিমদের সঙ্গে আলাপ করেন।

ক্রিকেটারদের সঙ্গে কী বলে গেলেন গ্রিনিজ, তা সাংবাদিকদের জানান মেহেদী হাসান মিরাজ। বাংলাদেশ দলের ডানহাতি এই স্পিনার বলেন, ‘আমাদের সাথে কথা বললেন। আমাদের বেশির ভাগেরই তার সঙ্গে পরিচয় নেই। যাদের সঙ্গে তিনি কাজ করেছেন, তারা সবাই অবসর নিয়েছেন। এখন শুধু হাই-হ্যালো। উনি বলেছেন, কষ্ট করতে হবে, হার্ড ওয়ার্ক করতে হবে, এটা করলে ভালো হবে।’

গর্ডন গ্রিনিজের অধীনে যখন বাংলাদেশ দল আইসিসি ট্রফি জেতে, মিরাজের বয়স তখন মাত্র তিন বছর। কিংবদন্তি এই কোচের সম্পর্কে যা শুনেছেন, তাও লোকমুখে। সেটাই উল্লেখ করলেন মিরাজ। বললেন, ‘খুব ভালো লাগছে। তিনি কিংবদন্তি। বাংলাদেশের কোচ ছিলেন। তার সাথে কথা বলে ভালো লেগেছে।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close