আইপিএলক্রিকেট

যে কারণে আইপিএল ছেড়ে চলে গেলেন ৪ ইংলিশ ক্রিকেটার

পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্টে ইংল্যান্ডের দল ঘোষণা করা হয়েছে। আর সেই দলেই জায়গা হয়েছে জস বাটলারের।তাই তিনি ফিরছেন ইংল্যান্ড টেস্ট দলে । মঙ্গলবার (১৫ মে) ঠিক এমনই একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে ‘দ্য টেলিগ্রাফ’।

চলতি আইপিএলে বেশ ভালো পারফর্ম করেছেন রাজস্থানের জার্সি গায়ে দেওয়া বাটলার। তাই বেশ বড় ধরনের ধাক্কা সইতে হতে পারে রাহেনেদের। আগামী পাকিস্তান-ইংল্যান্ডের মধ্যকার সিরিজের প্রথম টেস্টটি অনুষ্ঠিত হবে ২৪ মে। আর ম্যাচটিতে যদি বাটলার খেলেন তবে রাজস্থানের পরবর্তী ম্যাচ এবং কোয়ালিফায়ার-এলেমিনেটরের ম্যাচ খেলা হবে না ্ এই ইংলিশ খেলোয়াররের।

তথ্যসূত্রে জানা যায়, আইপিএল ছাড়ার দলে শুধু বাটলার নয়। শিগগিরই দেশে ফিরতে হবে মঈন আলী, ওকস, বেন স্টোকসকেও।
প্রসঙ্গত, ১৮ মাস আগে ভারতের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্ট খেলেছিলেন বাটলার।

 

বাংলাদেশ সফরে আসছে ভারত

ভারতের হুইলচেয়ার দলের ক্রিকেটারদের এশিয়া কাপে অংশ গ্রহণের জন্য অর্থ সহায়তা করলেন লিটল মাস্টার শচিন টেন্ডুলকার। এশিয়া কাপে অংশ নেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় ৪ লক্ষ ৩৯ হাজার টাকা তিনি সর্বভারতীয় হুইলচেয়ার ক্রিকেট সংস্থার কাছে পাঠিয়ে দেন৷ বাংলাদেশ সফরে আসছে ভারত।

এর আগেও তিনি ভারতের দৃষ্টিহীন ক্রিকেট দলের সহায়তায় এগিয়েছিলেন। বিশ্বজয়ী দৃষ্টিহীন দলের স্বীকৃতি ও আর্থিক
সাহায্যের জন্য নিজেই বিসিসিআইয়ের কাছে আবেদন জানিয়েছিলেন ৷ তবে এবার তিনি বিসিসিআইয়ের কাছে কোনরূপ আবেদন জানায়নি, তার নিজের অর্থ দিয়ে ভারতের হুইলচেয়ার ক্রিকেট দলের পাশে থাকতে চান ক্রিকেটের এই তারকা৷

আর্থিক অনটনের মধ্যে থাকা ভারতীয় হুইলচেয়ার দল শচিনের কাছে স্পনসর জোগাড় করে দেওয়ার আবেদন জানিয়েছিল৷ শচিন নিজেই সাহায্যে এগিয়ে আসেন৷ শচিন অর্থসাহায্য না করলে যে বাংলাদেশ সফরেই আসা হতো না ভারতীয় হুইল চেয়ার ক্রিকেট দলের।

অর্থের অভাবে বাংলাদেশ সফর বাতিল হয়ে যেতে বসেছিল ভারতীয় জাতীয় হুইল চেয়ার ক্রিকেট দলের। ওই সময় শচিনের কাছে অর্থসাহায্যের জন্য আবেদন জানানো হয়। সাড়া দেন শচিনও। বাংলাদেশে তিন ম্যাচের সিরিজে ২-০ জয় পেয়ে শচিনের ওই সাহায্যের যোগ্য মর্যাদাও দিয়েছে ভারতীয় হুইলচেয়ার ক্রিকেট দলের সদস্যরা।

হুইলচেয়ার ক্রিকেট ইন্ডিয়ার সেক্রেটারি-জেনারেল প্রদীপ রাজ জানান, তিনি শচিনকে ই-মেল করেছিলেন দলের জন্য স্পনসর এনে দেওয়ার অনুরোধ করে৷ তিন দিনের মধ্যেই শচিনের অফিস থেকে ফোন করে জানতে চাওয়া হয় ঠিক কত পরিমাণ অর্থ প্রয়োজন৷ সংস্থার উত্তর পাওয়া মাত্রই মাস্টার ব্লাস্টারের অফিস থেকে সেই অর্থ পাঠিয়ে দেওয়া হয়৷ তিনি আরও বলেন যে, দলের ক্রিকেটাররা শচিনের অবদানে দারুণ খুশি৷ প্রত্যেকেই একবার অন্তত তাঁর সঙ্গে দেখা করে ধন্যবাদ জানাতে চান৷

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close