আন্তর্জাতিক ফুটবলফুটবল

জেনে নিন বিশ্বকাপের চমকপ্রদ কিছু তথ্য

আর মাত্র ২৯ দিন পর পর্দা উঠছে ২০১৮ রাশিয়া ফুটবল বিশ্বকাপের। ‘গ্রেটেস্ট শো অন দ্য আর্থ’ খ্যাত এই টুর্নামেন্ট শুরু হবে আগামী ১৪ জুন। বিশ্বকাপ নিয়ে চমকপ্রদ কিছু তথ্য জানাতে এই আয়োজন।

১৯৫৮ সালের পর প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের মূলপর্বে উঠতে ব্যর্থ হয়েছে ইতালি। এখন পর্যন্ত বিশ্বকাপ জেতা আট দলের মধ্যে তারাই একমাত্র রাশিয়ার টিকিট পায়নি।

কোনো শিরোপা জেতা ছাড়া সবচেয়ে বেশিবার বিশ্বকাপের মূলপর্বে উঠেছে মেক্সিকো (১৬)। একমাত্র সুইজারল্যান্ড কোনো গোল হজম করা ছাড়াই কোনো বিশ্বকাপ শেষ করতে পেরেছে। ২০০৬ বিশ্বকাপে একটি গোলও হজম করেনি তারা। শেষ ষোলোতে গোলশূন্য ড্রয়ের পর টাইব্রেকারে হেরে বিদায় নিয়েছিল।

বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের খেলা ৬২ ম্যাচের মধ্যে ১১টি গোলশূন্য স্কোরলাইনে শেষ হয়েছে, যা কোনো দলের সর্বোচ্চ। বিশ্বকাপের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি লাল কার্ড পেয়েছে ব্রাজিলের খেলোয়াড়রা (১১)। আর্জেন্টিনা (১০) এবং উরুগুয়েও (৯) খুব একটা পিছিয়ে নেই।

বিশ্বকাপের এক আসরে সবচেয়ে বেশি গোল হয়েছে ১৭১টি (১৯৯৮ ও ২০১৪)। আর সবচেয়ে কম ১৪৫ গোল হয়েছে ৬৪ ম্যাচে (২০১০)।শেষ তিন বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি গোল করেছে জার্মানি (২০০৬ সালে ১৪টি, ২০১০ সালে ১৬টি, ২০১৪ সালে ১৮টি)। বিশ্বকাপে এক ম্যাচে সবচেয়ে বেশি গোল হয়েছে ১৯৫৪ সালের ২৬ জুন; সুইজারল্যান্ডকে ৭-৫ গোলে হারিয়েছিল অস্ট্রিয়া।

ইউরোপের একমাত্র দল হিসেবে জার্মানি সব বাছাইপর্ব পেরিয়েছে। যেখানে তাদের সর্বোচ্চ গোল পার্থক্য (+৩৯)। এই নিয়ে ১৫তম বারের মতো বিশ্বকাপে খেলবে ইংল্যান্ড। টানা ছয় আসরে তারা বাছাইপর্ব পেরিয়েছে, যেটি তাদের যৌথভাবে সর্বোচ্চ। ১৯৫০ থেকে ১৯৭০ পর্যন্ত টানা ছয় আসরে খেলেছিল তারা।

 

ধন্যবাদ সাকিব আঙ্কেল : তাহসানের মেয়ে আয়রা

 

বাংলাদেশের ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় বিজ্ঞাপন সাকিব আল হাসান। বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডারকে নিয়ে ইতোমধ্যেই লেখা হয়েছে বই। ২০১৫ সালে ক্রীড়া সাংবাদিক ও লেখক দেবব্রত মুখোপাধ্যায় লিখেছিলেন ‘আপন চোখে, ভিন্ন চোখে’।

চলতি বছর সেই সাকিব নিজেই লিখেছেন বই। তবে বইটি ক্রিকেট কিংবা নিজেকে নিয়ে নয়। বিশ্বের অন্যতম সেরা এই অলরাউন্ডার লিখেছেন শিশুতোষ গল্পের বই। বইয়ের নাম ‘হালুম’। বইটি প্রকাশ হয় এ বছরের অমর একুশে গ্রন্থমেলায়। শিশুদের নিয়ে লেখা বইটি বেশ সাড়া ফেলেছিল তখন।

শিশুদের জন্য খেলা সেই বইটি সম্প্রতি পড়া শুরু করে তাহসান খান-রাফিয়াথ রশিদ মিথিলার মেয়ে আয়রা তাহরিম খান। বই পড়া শেষে সাকিবকে ধন্যবাদ জানাতে ভোলেনি আয়রা। ধন্যবাদটুকু অবশ্য পৌঁছে দিয়েছেন আয়রার বাবা তাহসান, সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ইনস্টাগ্রামের কল্যাণে।

১৫ মে, মঙ্গলবার ইনস্টাগ্রামে মেয়ে আয়রার একটি ছবি পোস্ট করেন তাহসান। ছবিটিতে দেখা যায়, সাকিব আল হাসানের লেখা ‘হালুম’ বইটি খুলে রেখেছে আয়রা। বইয়ের প্রথম পাতায় সাকিবের শুভ কামনা বার্তা লেখা। ছবির ক্যাপশনে লেখা ছিল, ‘ধন্যবাদ সাকিব আঙ্কেল…আয়রা।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close