আন্তর্জাতিক ক্রিকেটক্রিকেট

‘টি-টোয়েন্টি সামর্থ্যের ওপর যে প্রশ্নবোধক চিহ্নটা আছে, সেটা সরাতে চাই’

ওয়ানডে ও টেস্ট ক্রিকেটে যতটা উজ্জ্বল, টি-টোয়েন্টিতে ততটাই বিবর্ণ বাংলাদেশ। ঠিক কতটা বিবর্ণ তার প্রমাণ, টি-টোয়েন্টি র‌্যাংকিংয়ে বাংলাদেশের বর্তমান অবস্থান আফগানিস্তানেরও নিচে।

ওয়ানডে ও টেস্টের তুলনায় ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত এই ফরম্যাটে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স নিয়ে বরাবরই একটা প্রশ্নবোধক চিহ্ন রয়েছে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে সেটাই মুছে ফেলতে চান বাংলাদেশ দলের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

বুধবার ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে এ নিয়ে মাহমুদউল্লাহ বলেন, ‘টি-টোয়েন্টি পুরোপুরি ভিন্ন ধরনের খেলা। এই খেলার গতিটাও ভিন্ন। আমাদের টি-টোয়েন্টি সামর্থ্যের ওপর যে প্রশ্নবোধক চিহ্নটা আছে, আমরা সেটা সরাতে চাই।’

একই সঙ্গে একটা বার্তাও দিয়ে রাখতে চান এই অধিনায়ক, ‘আমরা পৃথিবীর প্রতিটি দলকে একটা বার্তা দিয়ে রাখতে চাই যে টেস্ট ও ওয়ানডেতে আমরা যেভাবে এগোচ্ছিলাম। টি-টোয়েন্টিতেও আমরা সেভাবেই এগিয়েছি।’

ইনজুরি আক্রান্ত সাকিব আল হাসানের অনুপস্থিতিতে টেস্ট সিরিজে নেতৃত্ব দেন মাহমুদউল্লাহ। প্রথম টি-টোয়েন্টিতেও নেতৃত্ব তার কাঁধে। সাদা পোশাকে সিরিজ খোয়ালেও এই ফরম্যাটে চোখ শিরোপায় মাহমুদউল্লাহর, ‘টি-টোয়েন্টিতে কিছু ট্যাকটিক্যাল বিষয় রয়েছে। সেগুলো ধরতে পারা এবং নিজেদের স্কিল এক্সিকিউট করতে পারলে সিরিজ জয় সম্ভব হবে।’

টেস্ট হয়তো হারিয়ে যাবে শিগগিরই

টি-টোয়েন্টি ম্যাচের কারণে হারিয়ে যাচ্ছে ক্রিকেটের আদি সংস্করণ টেস্ট ও ওয়ানডে ফরম্যাট। মাত্র ১৫ বছর আগে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয় টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের। অথচ এর মাঝেই ক্রিকেটের প্রতিষ্ঠিত ফরম্যাট টেস্ট ও ওয়ানডের জনপ্রিয়তা ছাড়িয়ে গেছে এটি। প্রথম থেকেই এ ফরম্যাট নিয়ে ভয় ছিল যে ধীরে ধীরে এটি অন্য ফরম্যাটগুলোকে ছাপিয়ে যাবে। প্রায় ১৪০ বছরেরও বেশি আগে (১৮৭৭-৭৮) আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের যাত্রা শুরু হয় টেস্ট ক্রিকেটের মাধ্যমে। এরপর প্রায় ১০০ বছর পরে (১৯৭১) আসে ৫০ ওভারের ক্রিকেট।
সে তুলনায় টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট একেবারেই নবীন। আর এখন তো দশ ওভারের ফরম্যাটকেও জনপ্রিয় করার একটা চেষ্টা চলছে।
এ কারণেই ইংল্যান্ডের উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান ভবিষ্যৎ দেখছেন না টেস্ট ক্রিকেটের। সামনে হয়তো টি-টোয়েন্টিই একমাত্র ফরম্যাটের ক্রিকেট হিসেবে খেলা হবে বলে ধারণা তার। বাটলারের মতে খুব শিগগিরই আসছে এই দিন, আমি অনুভব করছি ভবিষ্যতে ক্রিকেট এক ফরম্যাটের খেলা হয়ে যেতে পারে। সেটা হতে পারে খুব তাড়াতাড়ি অথবা ১৫-২০ বছরের মধ্যে। ২০১৬’র পর ইংল্যান্ডের হয়ে টেস্ট খেলা হয়নি ২৭ বছর বয়সী বাটলারের। তিনি আরো বলেন, টেস্ট ক্রিকেটই আমার কাছে সবচেয়ে প্রিয় খেলা। কিন্তু টি-টোয়েন্টিতে মাঠে দর্শক বেশি থাকে। এ ছাড়া এ খেলার খোঁজ খবর রাখাও তুলনামূলকভাবে সহজ। সবাই এখন সবকিছুর ফল খুব দ্রুত পেতে চায়। সেভাবেই সবকিছুর আয়োজন হচ্ছে এখন। এ কারণেই হয়তো অদূর ভবিষ্যতে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট দুনিয়ায় টেস্ট ও ওয়ানডে ফরম্যাটের জন্য কাল হয়ে দাঁড়াতে পারে।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close