আন্তর্জাতিক ক্রিকেটক্রিকেট

টি-টোয়েন্টি সিরিজের জয় নিয়ে বেশ আশাবাদী লঙ্কান ওপেনার উপুল থারাঙ্গা

আগামীকাল ১৫ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশের বিপক্ষে দুই ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথমটিতে মাঠে নামবে শ্রীলঙ্কা। বাংলাদেশে বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে ও শ্রীলঙ্কাকে নিয়ে অনুষ্ঠিত ত্রিদেশীয় সিরিজে জয় পায় বাংলাদেশ। এরপর বাংলাদেশের বিপক্ষে অনুষ্ঠিত দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজে ১-০ জয় পায় তারা। কাল প্রথম টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের মোকাবেলা করবে তারা।

আর আসন্ন এই টি-টোয়েন্টি সিরিজের জয় নিয়ে বেশ আশাবাদী লঙ্কান ওপেনার উপুল থারাঙ্গা। জয়ের ব্যাপারে নিজেদের আত্মবিশ্বাসের কথা ভালো-ভাবেই জানিয়ে গেলেন তিনি। বলেন, ‘ওয়ানডে টুর্নামেন্ট ও টেস্ট সিরিজে আমরা খুব ভালো করেছি। এখন আমরা আত্মবিশ্বাসী। টি-টুয়েন্টিতে আমাদের কিছু নতুন মুখ আছে। আমাদের ভালো মোমেন্টাম আছে। আমরা এটাকে চালিয়ে যেতে চাই। ‘

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের মনে হচ্ছে আমরা সেই মোমেন্টামটা পেয়ে গেছি। বিশেষ করে ওয়ানডে ও টেস্ট সিরিজ জয়ের মধ্য দিয়ে। সত্যিকার অর্থেই আমার এখন দারুণ আত্মবিশ্বাসী।’

অশোভন আচরণের দায়ে শাস্তি পেলেন রাবাদা

প্রথমবারের মতো ঘরের মাঠে ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ খুঁইয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। কাগিসো রাবাদা স্বভাবতই হতাশ হবেন। তাঁর দুঃখটা আরো বাড়িয়ে দিয়েছে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা আইসিসি। আজ বুধবার অনুষ্ঠিত ম্যাচে ভারতীয় ব্যাটসম্যানর শিখর ধাওয়ানকে আউট করে রাবাদার অশোভন আচরণ ভেঙ্গেছে আইসিসির আচরণবিধি। তাই ম্যাচফির ১৫ শতাংশ জরিমানার পাশাপাশি একটি ডিমেরিটও পেয়েছেন এই পেসার।

কাগিসো রাবাদার বলটাতে পুল করেছিলেন শিখর ধাওয়ান। ডিপ স্কয়ার লেগে ফেহলুকওয়ায়ো লুফে নিলেন ক্যাচটা। আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান ধাওয়ানকে ডেকে রাবাদা দেখালেন সাজঘরের পথ। পুরো সিরিজে অসাধারণ ব্যাটিংয়ে প্রোটিয়া বোলারদের ঘুম হারাম করে দেওয়ার কারণেই হয়তো ক্ষোভটা ওভাবেই মিটিয়েছিলেন রাবাদা।

কিন্তু আইসিসির আচরণবিধিতে পরিষ্কার বলা আছে, ‘এমন কোনো আগ্রাসী আচরণ প্রতিপক্ষ ক্রিকেটারের সঙ্গে করা যাবে না যেটা উগ্রতাকে উসকে দেয়।’ ফলে আর্থিক জরিমানার সঙ্গে ডিমেরিট পয়েন্টও পেলেন রাবাদা।

ডিমেরিট পয়েন্ট অবশ্য এর আগেও পেয়েছেন রাবাদা। বছরখানেক আগে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডেতে রাবাদা পেয়েছিলেন তিনটি ডিমেরিট পয়েন্ট। ইংল্যান্ডের মাঠে টেস্টেও পেয়েছেন এক ডিমেরিট পয়েন্ট। চার ডিমেরিট পয়েন্ট হয়ে যাওয়ায় নামতে পারেননি ট্রেন্টব্রিজ টেস্টে। চলতি সিরিজের এক পয়েন্ট নিয়ে রাবাদার মোট ডিমেরিট পয়েন্টসংখ্যা দাঁড়াল পাঁচে।

সব মিলিয়ে রাবাদাকে এবার থাকতে হচ্ছে বেশ সতর্ক। পরের এক বছরের মধ্যে ডিমেরিট পয়েন্টের সংখ্যা যদি ৮ বা তারচেয়ে বেশি হয়ে যায় তবে নেমে আসবে বড়সড় নিষেধাজ্ঞা। সেটা হতে পারে এক টেস্ট কিংবা দুই টেস্ট অথবা দুই ওয়ানডে বা দুই টি-টোয়েন্টিতে। নিষিদ্ধ হতে পারেন চার ওয়ানডে বা চার টি-টোয়েন্টিতেও।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close