আন্তর্জাতিক ক্রিকেটক্রিকেট

টি-টোয়েন্টিতে সাকিব না থাকায় এবার যা বললেন পেরেরা

ত্রিদেশীয় ও টেস্ট সিরিজ হারার পর এখন বাকি রইল শুধু লঙ্কানদের বিপক্ষে টাইগারদের দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। বাংলাদেশ চাইবে নিজেদের সেরা খেলাটা খেলে অন্তত টি-টুয়োন্টি সিরিজটা জিততে। কিন্তু বাংলাদেশ দলের জন্য দুঃসংবাদ হল দলের সেরা খেলোয়াড় সাকিব আল হাসানকে সিরিজে পাচ্ছে না তারা। আর এতে অনেক ঝামেলায় পোহাতে হলে দলকে।

আর বাঁহাতি এই স্পিনারের পরিবর্তে আর একজন বাঁহাতি স্পিনারকেই ডেকেছেন নির্বাচকরা। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি দলে সুযোগ পেয়েছেন নাজমুল ইসলাম অপু। তবে তাকে দলে ভেড়ানোর জন্য আনুষ্ঠানিক কোনো ঘোষণা দেয় নি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। আজ মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুশীলনে আসে বাংলাদেশ দল। আর সেখানে বল করতে দেখা যায় অপুকে। অপুর ব্যাপারে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বলেন, ‘আমরা অপুকে দলে নিয়েছি। খুব শিগগিরই আপনাদের জানানো হবে। ‘

টি-টোয়েন্টিতে সাকিব না থাকায় এবার যা বললেন পেরেরা :-

দলে সাকিব না থাকাকে বাংলাদেশের জন্য বড় ধাক্কা বলেই মনে করছেন লঙ্কানদের অন্যতম সেরা অল রাউন্ডার থিসারা পেরেরা। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘সবাই জানে সাকিব একজন মেধাবী খেলোয়াড়। সে একাই ম্যাচ ঘুরিয়ে দিতে পারে। তাই আমি মনে করি সাকিবকে ছাড়া খেলা বাংলাদেশের জন্য বড় আঘাত। ‘ উল্লেখ্য, আগামী ১৫ই ফেব্রুয়ারি টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ।

সাকিব ফিরতেই চেয়েছিলেন…

বাংলাদেশ দল ভীষণ ব্যস্ত। অথচ সাকিব আল হাসানের অখণ্ড অবসর! কনিষ্ঠ আঙুলের চোট তাকে ছিটকে দিয়েছে দল থেকে। কী আর করা, সময়টা কাজে লাগাতে তিন দিনের জন্য গিয়েছিলেন মাগুরায়। সেখান থেকে ফিরেছেন ৯ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার।

আঙুলে সেলাই পড়েছে ২৭ জানুয়ারি। চিকিৎসকের নির্দেশনা অনুযায়ী সেলাই কাটা হবে ১০ ফেব্রুয়ারি, শনিবার। সাকিব ভেতরে-ভেতরে রোমাঞ্চিত। সেই রোমাঞ্চটা, যেটি অনুভব করেছিলেন প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার আগে? এবারের রোমাঞ্চ অবশ্য ভিন্ন কারণে।

ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে বাংলাদেশ হেরেছে। মিরপুর টেস্ট আড়াই দিনে হেরে খুইয়েছে টেস্ট সিরিজও। দলের টানা ব্যর্থতা দূর থেকে দেখতে তাঁর কি ভালো লাগে? হাত করছে নিশপিশ, মনের ভেতরে ছটফটানি, ফেরার ভীষণ তাড়া অনুভব করছেন সাকিব। ব্যান্ডেজের আড়ালে থাকা কনিষ্ঠ আঙুল একটু আশাও যেন দেয়। মাগুরা থেকে ফেরার পথে কাছের বন্ধুকে তাই বলেন, ‘দেখিস, টি-টোয়েন্টিতে ফিরতে পারব।’

১০ ফেব্রুয়ারি অবশেষে এল। হাসপাতালের ওয়েটিংরুমেই পেলেন খবরটা, টি-টোয়েন্টি দল দেওয়া হয়েছে তাঁকে অধিনায়ক করেই। অনেক আশা নিয়ে ঢুকলেন ডাক্তার অজিত আগারওয়ালের রুমে। অনেক বড় তারকা হলেও তিনি তো রক্তমাংসের মানুষ। সেলাই কাটতে গিয়ে ব্যথায় তাই কুঁকড়ে ওঠেন। যদিও বাংলাদেশ দলের ফেরার তাড়নার কাছে এ ব্যথা তুচ্ছ!

ডাক্তারের কক্ষে ঢুকেছিলেন হাসিমুখে, ফেরেন মন খারাপ করে। সেলাই কাটার পর দেখলেন আঙুলের যে অবস্থা, উপায় নেই এখনই মাঠে ফেরার। অন্তত এই টি-টোয়েন্টি সিরিজে তো নয়ই। নির্বাচকেরা তবুও আশায় থাকেন—সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টিতে অন্তত খেলবেন। রূঢ় বাস্তবতা আড়াল করে দেয় আবেগকে। নির্বাচক, টিম ম্যানেজমেন্ট, সতীর্থ, দর্শকেরা শুধু আফসোসটাই করতে পারেন, ‘সাকিব যদি থাকতেন…।’

সাকিব নেমেই যে মুড়িমুড়কির মতো উইকেট পাবেন, তা নয়। নেমেই সেঞ্চুরি করে ফেলবেন, তা–ও নয়। তবে সাকিব বাংলাদেশের ক্রিকেটে বিরাট ‌‘ব্র্যান্ড’, যাঁর উপস্থিতি বদলে দেয় ড্রেসিংরুমের ছবি, বাড়তি আত্মবিশ্বাস কাজ করে খেলোয়াড়দের মধ্যে। তাঁকে নিয়ে প্রতিপক্ষ ছক কষতে হয় গলদঘর্ম। ব্যাটিং-বোলিং দুই বিভাগেই যে সাকিব বাংলাদেশ দলের অন্যতম ভরসা! প্রতিপক্ষ যখন সাকিবকে নিয়ে হিসাব কষতে ব্যস্ত, এই ফাঁকে অন্য খেলোয়াড়দের নায়ক হওয়ার সুযোগটা যায় বেড়ে।

এক সাকিব না থাকাটা কত বড় ক্ষতি, বাংলাদেশ সেটা হাড়ে হাড়ে টের পেয়েছে গত কদিনে। শ্রীলঙ্কান অলরাউন্ডার থিসারা পেরেরা আজ যেমন বললেন, ‘সবাই জানে সে কতটা প্রতিভাবান খেলোয়াড়। সে ম্যাচের পার্থক্য গড়ে দিতে পারে। সাকিবকে ছাড়া নামাটা বাংলাদেশের জন্য বিরাট ধাক্কা।’

অনেক আশা ছিল, টি-টোয়েন্টি সিরিজটা অন্তত খেলতে পারবেন। সেটি হয়নি, এই বসন্তেও সাকিবের মনের আকাশে তাই শ্রাবণের মেঘ। কিন্তু মানসিকভাবে দৃঢ়চেতা বলে বাইরে থেকে সেটি বোঝার উপায় নেই। সাকিবের এই চোট একটা বড় বার্তাও দিচ্ছে, বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের বিকল্প যে নেই, সেটি প্রমাণ হয়ে গেছে এই শ্রীলঙ্কা সিরিজেই। গত ডিসেম্বরে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেই বিরাট কোহলির অনুপস্থিতে রোহিত শর্মার নেতৃত্বে ভারত ওয়ানডে সিরিজ জিতেছে। কিন্তু সাকিব না থাকলে বাংলাদেশ দল যেন ছন্নছাড়া! তবু আশা, সাকিব এই সিরিজ না হোক, পরেরটায় নিশ্চয়ই ফিরবেন। কিন্তু একটা সময় যখন খেলাটাই ছেড়ে দেবেন, তাঁর বিকল্প কী হবে, সেটা কি ভাবনায় আছে বিসিবির?

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close