ক্রিকেটবাংলাদেশ ক্রিকেট

সূচিতে ২ ম্যাচ বাড়লো বাংলাদেশের

আইসিসির হালনাগাদ ফিউচার ট্যুর প্রোগ্রামে (এফটিপি) ২টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ বাড়লো বাংলাদেশের। ২০১৯-২০২৩ পর্যন্ত এফটিপি-তে চতুর্থ সর্বাধিক ম্যাচ খেলার সুযোগ পাচ্ছে টাইগাররা। এর আগে ৮ই ডিসেম্বর ঘোষিত এফটিপিতে বাংলাদেশের ম্যাচের সংখ্যা ছিল ১২২। তবে পুননির্ধারিত সূচিতে দুটি টি- টোয়েন্টি বেড়ে বাংলাদেশ খেলার সুযোগ পাচ্ছে ১২৪টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ। হালনাগাদ সূচিতে আগামী চার বছরে বাংলাদেশ খেলবে ৩৫ টেস্ট, ৪৫ ওয়ানডে ও ৪৪ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। এবারের এফটিপিতে সর্বাধিক ১৫১টি ম্যাচ খেলার সুযোগ পাচ্ছে ভারত।
ভারতীয়রা খেলবে ৩৭ টেস্ট, ৬১ ওয়ানডে ও ৫৩ টি-টোয়েন্টি।

হালনাগাদ সূচিতে লাভবান হয়েছে পাকিস্তান। আগের ঘোষিত সূচিতে ১০৪টি ম্যাচ ছিল পাকিস্তানের। তবে পরিবর্তিত সূচিতে পাকিস্তান পাচ্ছে আরো ১৭টি ম্যাচ। আইসিসির নিচের সারির দলগুলোর মধ্যে লাভবান আয়ারল্যান্ড। ২০১৯-২০২৩ পর্যন্ত এফটিপিতে আইরিশরা পাচ্ছে ১০৯টি ম্যাচ। এতে রয়েছে আইরিশদের ১৬টি টেস্ট খেলার সুযোগ। মোট ৯৬টি ম্যাচ খেলবে জিম্বাবুয়ে। তবে এতে তারা পাচ্ছে ১৯টি টেস্ট।
২০১৮’র ফেব্রুয়ারিতে আইসিসির সভায় অনুমোদন করা হবে নতুন এফটিপি। আর নতুন এফটিপি কার্যকর হবে ২০১৮’র মে’তে শীর্ষ ৯ দেশের টেস্ট লীগের মধ্য দিয়ে। সূচিতে দুই বছরে প্রত্যেক দল খেলবে ছয়টি করে সিরিজ। ২০২০-এ শুরু হবে ওয়ানডে লীগ। ২০২৩’র বিশ্বকাপ এককভাবে আয়োজন করবে ভারত। ভারতে বিশ্বকাপ আসর বসছে চতুর্থবার। তবে আগের তিনবারই সহআয়োজক হিসেবে ভারতের সঙ্গে ছিল উপমহাদেশের তিন দেশ বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা। ১৯৮৭’র বিশ্বকাপ মঞ্চস্থ হয়েছিল ভারত-পাকিস্তানের যৌথ আয়োজনে। ভারত, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার যৌথ আয়োজনে মাঠে গড়ায় ১৯৯৬’র বিশ্বকাপ। আর ২০১১’র বিশ্বকাপে ভারত ও শ্রীলঙ্কার সঙ্গে আয়োজকের মর্যাদা পায় বাংলাদেশ। সেবার যৌথ আয়োজকের মর্যাদা ছিল পাকিস্তানেরও। কিন্তু ২০০৯-এ লাহোরে সফরকারী শ্রীলঙ্কা দলের বাসে বন্দুকধারীর হামলার ঘটনায় ২০১১ বিশ্বকাপের আয়োজকের সুযোগ হারায় পাকিস্তান। ২০২০’র অক্টোবর-নভেম্বরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আসর বসবে অস্ট্রেলিয়ায়।

হালনাগাদ এফটিপি
দল ম্যাচ টেস্ট ওয়ানডে টি-২০
ভারত ১৫১ ৩৭ ৬১ ৫৩
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৪৯ ২৯ ৬২ ৫৮
ইংল্যান্ড ১৩৮ ৪৭ ৪৯ ৪২
বাংলাদেশ ১২৪ ৩৫ ৪৫ ৪৪
অস্ট্রেলিয়া ১২৩ ৪০ ৪৫ ৩৮
দক্ষিণ আফ্রিকা ১২২ ৩২ ৪৫ ৪৫
পাকিস্তান ১২১ ৩০ ৪৩ ৪৮
নিউজিল্যান্ড ১১৯ ২৮ ৪৫ ৪৬
শ্রীলঙ্কা ১১৭ ২৯ ৫১ ৩৭
আয়ারল্যান্ড ১০৯ ১৬ ৪৯ ৪৪
জিম্বাবুয়ে ৯৬ ১৯ ৪০ ৩৭
আফগানিস্তান ৮৮ ১৪ ৪১ ৩৩

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close