আন্তর্জাতিক ক্রিকেটক্রিকেট

শুধরানোর পরীক্ষা দিতে লন্ডন গেলেন মোহাম্মদ হাফিজ

অবৈধ অ্যাকশনের কারণে তৃতীয়বার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বোলিংয়ে নিষিদ্ধ হওয়া পাকিস্তানী অফ-স্পিনার মোহাম্মদ হাফিজ শুধরানোর পরীক্ষা দিতে লন্ডনে উড়াল দিয়েছেন। গত রাতে লন্ডনে উদ্দেশে দেশ ছাড়েন হাফিজ।

গত অক্টোবরে সংযুক্ত আরব আমিরাতের মাটিতে শ্রীলংকার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে হাফিজের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করে ম্যাচ কর্মকর্তারা। এরপর গত ১ নভেম্বর ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) স্বীকৃত ইংল্যান্ডের লাফবোরো ইউনিভার্সিটিতে নিজের বোলিং অ্যাকশনের পরীক্ষা দেন তিনি। কিন্তু সে পরীক্ষাতেও তার বোলিং অ্যাকশন যথার্থ হয়নি।

লন্ডনে দেয়া পরীক্ষার রিপোর্টে আইসিসি উল্লেখ করে, ‘বেশিরভাগ বোলিং ডেলিভারিতেই হাফিজের কনুই ১৫ ডিগ্রির বেশি বাঁকিয়ে যায়। যা আইসিসির নিয়মের বহির্ভূত নয়।’

পরবর্তীতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে হাফিজকে বোলিং করা থেকে নিষিদ্ধ করে আইসিসি। এই নিয়ে তৃতীয়বার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বোলিং-এ নিষিদ্ধ হলেন হাফিজ।

এর আগে ২০১৪ সালের নভেম্বরে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে প্রথমবার তার বোলিং অ্যাকশন নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করা হয়। পরে ডিসেম্বর থেকে নিষিদ্ধ হন তিনি। ২০১৫ সালের এপ্রিলে বোলিং অ্যাকশন শুধরে আইসিসির ছাড়পত্র পেয়ে আবারো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বোলিং-এ ফেরেন হাফিজ।

 

এরপর শ্রীলংকার বিপক্ষে গল টেস্টের পর আবারো বোলিং অ্যাকশন নিয়ে সন্দেহের তালিকায় পড়ে নিষিদ্ধ হন হাফিজ। পরে বোলিং শুধরে আবারো ফিরেন তিনি। আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী, ২৪ মাসের মধ্যে দু’বার বোলিং অ্যাকশন অবৈধ হওয়ার শাস্তিস্বরূপ ১২ মাসের জন্য বোলিং থেকে নিষিদ্ধ হন হাফিজ।

পাকিস্তানের হয়ে এখন পর্যন্ত ৫০টি টেস্ট, ১৯৫টি ওয়ানডে ও ৮৫টি টুয়েন্টি টুয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন হাফিজ।

হাফিজকে আকরামের পরামর্শ

নিজের ক্যারিয়ারকে দীর্ঘায়িত করতে বোলিং ত্যাগ করে কেবলমাত্র ব্যাটিংয়ে নজর দিতে মোহাম্মদ হাফিজকে পরামর্শ দিয়েছেন পাকিস্তান বোলিং গ্রেট ওয়াসিম আকরাম।

সাংবাদিকদের ওয়াসিম বলেন, ‘আমি মনে করি হাফিজের এখন বোলিং ত্যাগ করে কেবলমাত্র ব্যাটিংয়ে নজর দেয়া উচিত। ব্যাটিংয়ে তার কঠোর পরিশ্রম করতে হবে।’

গত মাসে তৃতীয় বার হাফিজের বোলিং এ্যাকশনে ত্রুটি খুঁজে পাওয়ার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে হাফিজের বোলিং নিষিদ্ধ করে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)।

ইংল্যান্ডে পরীক্ষায় ব্যর্থ হওয়ার পর পাকিস্তানী এ অলরাউন্ডারকে বোলিং নিষিদ্ধ করে আইসিসি।

ওয়াসিম বলেন, পরীক্ষায় ব্যর্থ হওয়ায় হাফিজের উচিত আইসিসি কর্মকর্তাদের সামনে নিজের বোলিং বিষয়ে একটা সিদ্ধান্ত নেয়া।

হাফিজ দীর্ঘ দিন বেশ ভালভাবে জাতীয় দলকে সেবা দিয়েছে,তাই তার অলরাউন্ড দক্ষতা পাকিস্তানের জন্য খুবই প্রয়োজন বলেও উল্লেখ করেন দেশটির সাবেক অধিনায়ক।

যেহেতু আইসিসি বোলিং আইনে পরিবর্তন এনেছে সেহেতু ২০১৪ সালে প্রথমবার নিষিদ্ধ হওয়ার পরই নিজের ক্যারিয়ার সম্পর্কে হাফিজের চিন্তা-ভাবনা করা উচিত ছিল বলে উল্লেখ করেন আকরাম।

তিনি বলেন, ‘সে অভিজ্ঞ এবং কেবলমাত্র ব্যাটিংয়ে কঠোর পরিশ্রম করা দরকার এটা তার ক্যারিয়ারের জন্য ভাল হবে।’

বোলিং এ্যাকশন শুধরাতে মনোযোগী হওয়ার লক্ষ্যে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল) টি-২০ টুর্নামেন্টে না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন হাফিজ।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close